মুখের দুর্গন্ধে কথা বলতে লজ্জা পাচ্ছেন? তবে সহজেই হোক সমস্যার সমাধান

মুখে দুর্গন্ধ? সঙ্গীর থেকে মুখ ফিরিয়ে থাকতে হবে না। সহজেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। আর প্রাণ খুলে কথা বলতে পারবেন। জেনে নিন।

সুস্মিতা দাস ঘোষ সেপ্টেম্বর 12, 2017 at 10:00

মুখে দুর্গন্ধের কারণে কথা বলতে লজ্জা লাগে? কিছুতেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাচ্ছে না? মন খারাপ করে বসে না থেকে ব্যবহার করুন কয়েকটি খুব সহজ উপাদান। ব্যাস তখন আর মুখ ফিরিয়ে থাকতে হবে না। সহজেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। আর প্রাণ খুলে কথা বলতে পারবেন। জেনে নিন।

মৌরি

আমরা অনেকেই খাবার পর মুখশুদ্ধি হিসাবে মৌরি খাই। এটি সত্যি খুব উপকারি মুখের দুর্গন্ধ দূর করার ক্ষেত্রে। তাই যাদের মুখে দুর্গন্ধের সমস্যা আছে, তারা খাবার পর একটু মৌরি মুখে রাখুন। এছাড়াও মৌরি জলে ফুটিয়ে জলটা ঠাণ্ডা করে সেই জলটা খান। বা সারারাত জলে মৌরি ভিজিয়ে রেখে সেই জলতাও খেতে পারেন। এতে খাবার হজমও হবে আবার মুখের দুর্গন্ধও কমবে।

দারুচিনি

দারুচিনিতে থাকে একধরনের এসেনসিয়াল অয়েল। যা মুখের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া যেটা মুখের দুর্গন্ধের জন্য দায়ী, তাকে ধ্বংস করে মুখের দুর্গন্ধ কমায় নিমেষে। এর জন্য দারুচিনি জলে ভালো করে ফোটান। সেই জলটা দিয়ে মুখ কুলকুচি করুন দিনে দুবার। এটি প্রাকৃতিক মাউথ ওয়াশের কাজ করে। এবং সহজেই দুর্গন্ধ কমায়।

পার্সলে পাতা

মুখের দুর্গন্ধ কমাতে খুব উপকারি উপাদান হল পার্সলে পাতা। কারণ এতে থাকে প্রচুর পরিমানে ক্লোরোফিল। মুখের দুগন্ধ কমাতে যা বিশেষ কার্যকরী। এর জন্য প্রতিদিন কাঁচা পার্সলে পাতা চিবিয়ে খান। বা পার্সলে পাতা ফুটিয়ে সেই জলটাও খেতে পারেন। এই সমস্যা থেকে অনেকটা মুক্তি পাবেন।

লবঙ্গ

মুখের দুর্গন্ধ কমাতে আরেকটি উপকারী উপাদান হল লবঙ্গ। রোজ এক থেকে দুটো করে লবঙ্গ মুখে চিবন। লবঙ্গের রস ধীরে ধীরে মুখের দুর্গন্ধ কমাতে সাহায্য করবে। বা লবঙ্গ ভালো করে ফুটিয়ে সেই জল খান। এছাড়াও লবঙ্গ চাও খেতে পারেন। এতেও কাজ হবে। মুখের দুর্গন্ধ অনেকটা কমবে।

লেবু

লেবু জলে নুন মিশিয়ে নিন

লেবুও মুখের দুর্গন্ধ কমাতে বেশ সাহায্য করে। এর জন্য গরম জলে লেবুর রস ফেলে, একটু নুন মিশিয়ে সেটা দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এটা দিনে দুবার করুন। মুখের দুর্গন্ধ কমে আসবে।

টি ট্রি অয়েল

টি ট্রি অয়েল মুখের দুর্গন্ধ কমাতে খুব কার্যকরী। এমন টুথ পেস্ট ব্যবহার করুন যাতে টি ট্রি অয়েল আছে। বা আপনার টুথ পেস্টে টি ট্রি অয়েল মিশিয়ে নিয়ে ব্রাশ করুন। দারুন কাজ হবে।

চা

যারা চা খেতে ভালোবাসেন মুখের দুর্গন্ধ কমাতে বেশি করে চা খান। কারণ চায়ে থাকে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। যা মুখের ভেতরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াকে নির্মূল করে। ও দুর্গন্ধ রোধ করে।

এছাড়াও মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে প্রতিদিন কিছু বিষয় মাথায় রাখা জরুরী।

ব্রাশ করা দরকার

১. প্রতিদিন সকালে ও রাতে খাবার পর দুবার ব্রাশ করা দরকার।

২. বেশি করে জল খান। জল শরীরকে ডিহাইড্রেড করে। কোন খাবার আটকে থাকলে সেটাও বেরিয়ে যাবে।

৩. খাবার পর সবসময় মুখ ধুয়ে নেবেন। যাই খান না কেন। এমনকি দুধ, চা, বিস্কুট এসব খাবার পরও মুখ দুবার কুলকুচি করে নেবেন।

৪. জিভ পরিষ্কার করুন। মুখের ভেতরের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য দাঁত পরিষ্কার করার পাশাপাশি জিভও পরিষ্কার করুন। দুর্গন্ধ বন্ধ করার জন্য জিভ পরিষ্কার রাখা দরকার।

৫. চুইংগাম খান। এতে বেশি করে লালা উৎপাদন হয়। তার ফলে ব্যাকটেরিয়া কমে।ও দুর্গন্ধ কমে।

৬. রোজ মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করুন।

৭. তামাক জাতীয় জিনিস বর্জন করুন।

৮. এতেও কাজ না হলে ডাক্তারের পরামর্শ করুন।

এই বিষয় গুলি মাথায় রাখুন। আর রোজ এই ঘরোয়া উয়াপদান গুলো ব্যবহার করুন। কথা দিচ্ছি সঙ্গী আর মুখ ফেরাতে পারবে না। কিন্তু এতেও কাজ না হলে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যান।

বগলে হওয়া দাগ ও দুর্গন্ধের থেকে বাঁচার ১০ টি উপায়

পিরিয়ডের সময় সেক্স করা উচিত কি?

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।